Md. Maheeb Hossen
Md.

রিভিউ করেছেন আল আবরার লাইব্রেরী
18 অক্টোবর, 2021

5.00
আল-আবরার লাইব্রেরীর সাথে আমার পরিচয়
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম! আলহামদুলিল্লাহ! আল-আবরার লাইব্রেরীর সাথে আমার সম্পর্ক প্রায় ২০১৫ সাল থেকে। মুফতী মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া হুজুরের সাথেও আমার সম্পর্ক প্রায় ২০১৫ সাল থেকেই। তখন আমার বয়স সম্ভবত ১৬ বছর। আমি সম্ভবত স্কুলে ৯ম শেণিতে পড়ি। তখন হুজুরের কাছ থেকে আমার প্রথম কেনা বইটি ছিল { নববী আদর্শের আলোকে সুখময় জীবনের সন্ধানে Enjoy Your Life ড. শায়খ মুহাম্মাদ বিন আব্দুর রহমান আরিফী } আমার কাছে তখন ১ হাজার টাকা ছিলো, তো আমি হুজুরকে বলেছিলাম এইরূপ যে আমাকে কয়েকটা বই দিতে যেহেতু আমার কাছে ১ হাজার টাকা ছিলো। কিন্তু হুজুর আমাকে অনেক গুলো বই না দিয়ে, নববী আদর্শের আলোকে সুখময় জীবনের সন্ধানে বইটি সম্বন্ধে বলেছিলেন, আমাকে তিনি সুন্দরভাবে দেখিয়েছিলেন যে এই বইটিতে লেখক কি কি লিখেছেন, এটা পড়লে আমি কি কি জানতে পারবো, এবং তিনি আমাকে এও বা এইরূপও বলেছিলেন যে (সুবহানাল্লাহ!) এই বইটি পড়লে আমি দশটি বইয়ের ইলম বা জ্ঞান অর্জন করতে পারবো অর্থাৎ বইটি অনেক ভালো যে বইটি পড়ে অনেক কিছু জানা যাবে। তিনি আমাকে বলেছিলেন এইরূপ যে বইটিতে ৯০ টি (ভাগ) আছে। আমার সামনে যেহেতু এসএসসি পরিক্ষা সেহেতু আমি যদি প্রতিদিন শুধুমাত্র ১টি করে পড়ি তাহলেই হবে, এতে আমার পড়ালেখায় তেমন কোনো সমস্যার সৃষ্টি হবেনা, আমার পড়ালেখায় ব্যাঘাত ঘটবেনা। কিন্তু তিনি আমাকে তখনই বইটি কিনতে দেননি বরং আমাকে চিন্তা করে দেখার সুযোগ দিয়েছিলেন আরও বলেছিলেন এইরূপ যে এখন তাঁর কাছে যে বইটি আছে সেটি তাঁর নিজের। তাই আমি তখন না কিনে ফিরে যাই। এবং কয়েকদিন পরে আমার মায়ের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে এসে বইটি কিনে নিয়েছিলাম। তখন হুজুরের কাছে বইটির কয়েকটি কপিও ছিলো। আসলেই বইটি খুবই চমৎকার ছিল। আমি বইটি পড়ে খুবই আনন্দ পেয়েছিলাম বইটি পড়ে আমার অনেক ভালো লেগেছিল। আলহামদুলিল্লাহ! এরপরে আমি আজ পর্যন্ত হুজুরের কাছ থেকে তাঁর লাইব্রেরীতে গিয়ে আলহামদুলিল্লাহ হুজুরের পরামর্শক্রমে বিভিন্ন বই কিনেছি। ইনশাআল্লাহ! ভবিষ্যতেও হুজুরের সাথে সম্পর্ক রাখবো এবং তাঁর লাইব্রেরীতে যাবো বই কিনতে বই পড়তে হুজুরের সাথে দেখা করতে। ইনশাআল্লাহ! হুজুরের লাইব্রেরীটা মাদ্রাসার সাথে থাকায় আমার সেখানে যেতে আরো অনেক বেশী ভালো লাগে। আলহামদুলিল্লাহ! আমি যখন সময় সুযোগ পাই তখন মাদ্রাসার সংস্পর্শে যাওয়ার জন্য, আলেম উলামায়ে কেরামদের কাছে যাওয়ার জন্য চলে যাই হুজুরের লাইব্রেরীতে। আলহামদুলিল্লাহ! ইনশাআল্লাহ! ভবিষ্যতেও যাবো। ইনশাআল্লাহ! আমি দুআ করি আল্লাহ তা’আলা হুজুরের লাইব্রেরীতে বরকত দান করুন এবং আল্লাহ তা’আলা আমাদের সকলের যা যা দরকার আমাদেরকে তা তা দান করুন। আল্লাহ তা’আলা আমাদেরকে ভালোবাসুন। আল্লাহ তা’আলা আমাদেরকে মাফ করে দিন। আল্লাহ তা’আলা আমাদেরকে সঠিক পথে রাখুন। আল্লাহ আমাদেরকে মাফ করে দাও, আল্লাহ তুমি আমাদেরকে ভালোবাসো, আমরা যেই কাজ করলে তুমি খুশি হও আমাদেরকে সেই কাজ করার তাওফিক দাও। আমিন!